স দিয়ে ছেলেদের ইসলামিক নাম অর্থসহ

স দিয়ে ছেলেদের ইসলামিক নাম অর্থসহ

আজকে আপনাদের জন্য নিয়ে আসলাম, ছোট্ট বাবুদের নামের তালিকা। আপদি যদি স দিয়ে ছেলেদের ইসলামিক নাম অর্থসহ খুজে থাকেন। তাহলে আপনি এখন সঠিক জায়গাতেই এসেছেন।

নাম হলো মানুষের পরিচয় এবং নিদর্শন। নামের আরবি শব্দ হলো ইসম। ইসম শব্দের অর্থ হলো চিহ্ন, আলামত বা পরিচিতি। প্রত্যেক মানুষ দুনিয়াতে আসার পরে সর্ব প্রথম যেই জিনিস টি লাভ করে তা হলো তার নাম-পরিচয়।

আজকের আলোচনার বিষয়- স দিয়ে ছেলেদের ইসলামিক নাম অর্থসহ

আমরা সবসময় বলে থাকি,নামে কি আসে যায়! নাম একটা হলেই হয়। কিন্তু একজন মানুষের চারিত্রিক বৈশিষ্ট্য, তার নামের মাঝেই লুকায়িত থাকে। মৃত্যুর পরেও যে জিনিস টি বেচে থাকে তা হলো মানুষের নাম। তাই প্রত্যেক শিশুর সুন্দর নাম থাকা জরুরী।

তাই নামকরণের সময় ভাল একটি নাম বাছাই করা খুবি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। কিন্তু হাজার হাজার নামের মধ্যে থেকে স দিয়ে ছেলেদের ইসলামিক নাম অর্থসহ বেছে নেওয়া কিন্তু সহজ ব্যপার নয়। কারন “স”/S দিয়ে রয়েছে অনেক ইসলামিক নাম।

নামের প্রথমে মুহাম্মদ কেন যোগ করা হয়, নামের সাথে মুহাম্মাদ থাকা ভালো নাকি খারাপ, এ নিয়ে পোষ্টের শেষে আলোচনা করা হয়েছে। তাই সম্পূর্ণ পোষ্টি পড়তে থাকুন।

নীচে দেওয়া হলো ৭০ টি বাছাই করা স দিয়ে ছেলেদের ইসলামিক নাম অর্থসহ

1) সোহেল

নামের অর্থ – শুকতারা

2) সোহরাব

নামের অর্থ – পারস্যের এক বীর

3) সেকেন্দার

নামের অর্থ – সম্রাট

4) সেলিম

নামের অর্থ – নিরাপদ

5) সৈয়দ

নামের অর্থ – নেতা

6) সুলায়মান 

নামের অর্থ – নিখুঁত, নিরাপদ

7) সুলতান

নামের অর্থ – রাজা, বাদশা

8) সিফিয়ান

নামের অর্থ – সাহাবীর নাম

9) সিরাজ

নামের অর্থ – বাতি, প্রদীপ 

10) সায়েব

নামের অর্থ – সঠিক

11) সিফাত

নামের অর্থ – গুণাবলি 

12) সাদ

নামের অর্থ – সাহাবীর নাম

13) সাহীম

নামের অর্থ – অংশীদার

14) সালাম

নামের অর্থ – শান্তি, নিরাপত্তা

15) সামীর

নামের অর্থ – ফলদাতা

16) সালমান

নামের অর্থ – নিরাপদ

17) সাদিন 

নামের অর্থ – পবিত্র কাবাঘরের দ্বাররক্ষক

18) সাদাতুল্লাহ

নামের অর্থ – আল্লাহর প্রশান্তি

19) সাদাত

নামের অর্থ – সুখ, প্রশান্তি

20)  সাদ্দাম

নামের অর্থ – আঘাতকারী

21) সাদমান

নামের অর্থ – শোকাহত

22) সাফাওয়াত

নামের অর্থ – ফুল

23) সাত্তার

নামের অর্থ – গোপনকারী

24) সাজ্জাদ

নামের অর্থ – অধিক সেজদাকারী

25) সাজিদ

নামের অর্থ – ইবাদতকারী

26) সাখাওয়াত

নামের অর্থ – দানশীল

27) সাকিব

নামের অর্থ – উজ্জ্বল

28) সাঈদ

নামের অর্থ – সুখী

29) সাইয়েদ

নামের অর্থ – জনাব, নেতা

30) সাইম

নামের অর্থ – রোজাদার

31) সাইফুল্লাহ

নামের অর্থ –  আল্লাহর তরবারি

32) সাদিক

নামের অর্থ –  বন্ধু

33) সাদেক

নামের অর্থ – সত্যবাদী

34) সানাম

নামের অর্থ – দলনেতা

35) সাফীর

দেখতে থাকুন স দিয়ে ছেলেদের নাম অর্থসহ

নামের অর্থ –  দূত

36) সাইফুদ্দীন

নামের অর্থ – ধর্মের তরবারি

37) সাইফ

নামের অর্থ – অসি, তরবারি

38) সাইফুল ইসলাম

নামের অর্থ – ইসলামের তরবারি

39) সারফরাজ

নামের অর্থ – কিং, শ্রদ্ধেয়, ধন্য , মর্যাদাপূর্ণ, সম্মানের সম্মান

40) সাগর

নামের অর্থ -সাগর

41) সৈয়দ

নামের অর্থ – শুভ

42) সাজ্জাদ

নামের অর্থ – আল্লাহর উপাসক

43) সাখাওয়াত

নামের অর্থ – নমনীয়তা, উদারতা

44) সালাহ্

নামের অর্থ –  ধার্মিকতা, কল্যাণতা

45) স্যাম

নামের অর্থ – খোদার দ্বারা নির্মিত

46) সামাদ

নামের অর্থ – খোদার নব্বইয়ের নামগুলির মধ্যে একটি, অমর

47) সামান

নামের অর্থ – মুদিদার

48) সবুজ

নামের অর্থ – শ্যামল, তৃণবৎ, তৃণময়

49) সদরুদ্দীন

নামের অর্থ – দ্বীনের জ্ঞান,ইসলামিক জ্ঞান

50) সজীব

নামের অর্থ – জীবন্ত, জীবিত, সজীব, প্রাণবন্ত

51) সুমন

উত্তম মনের অধিকারী

52) সুজন

নামের অর্থ – জ্ঞানী

53) সাত্তার

নামের অর্থ – দোষ গোপনকারী

53) সরফরাজ

নামের অর্থ – অভিজাত

54) সাখাওয়াত

নামের অর্থ – দানশীল

55) সাদাত

নামের অর্থ – সুখ, প্রশান্তি

56) সুলতান আহমদ

নামের অর্থ – প্রশংসিত সাহায্যকারী

57) সাইফুল ইসলাম

নামের অর্থ – ইসলামের তরোয়াল

58) সৈয়দ আহমদ

নামের অর্থ – প্রসংশিত প্রদর্শক

59) সাখাওয়াত হুসাইন

নামের অর্থ- সুন্দর আলোবিচ্ছুরক

60) সাকিব সালিম

নামের অর্থ- সুন্দর স্বাস্থ্যবান দেখায় এমন

61) সামিন ইয়াসার

নামের অর্থ- মুল্যবান সম্পদ

62)সাব্বীর আহমেদ

নামের অর্থ- প্রশংসিত সাহায্যকারী

63) সিরাজুল হক

নামের অর্থ- সত্যের প্রদীপ

64) সিরাজুল ইসলাম

নামের অর্থ- সলামের বিশিষ্ট ব্যক্তি

65) সফিকুল হক

নামের অর্থ- সত্যিকারের গোলাম

66) সাদ্দাম হুসাইন

নামের অর্থ- ভালো বন্ধু

67) সাদিকুল হক

নামের অর্থ- সত্যের প্রিয়

68) সাইম

নামের অর্থ- রোজাদার

69) সালাউদ্দিন

নামের অর্থ- দ্বীনের ভদ্র

70) সামিন ইয়াসার

নামের অর্থ- মূল্যবান সম্পদ

আপনি যদি ঘরোয়া উপায়ে ১ মাসের ভিতরে , ডায়েট প্লান ফলো করে শরীরের ওজন বাড়াতে চান। তাহলে এই পোষ্টি পড়তে পারেন।

আমাদের সমাজে নামের সঙ্গে ‘মুহাম্মদ’ প্রায় সবারই মাঝে দেখা যায়। এটি হলো নামের অলংকার। আমাদের সবার প্রিয় নবীর এর প্রথম এবং মূল নাম হলো মুহাম্মদ।

তাই আমাদের সকলের প্রিয় নবীর প্রতি শ্রদ্ধা, ভালবাসা ও আনুগত্যের প্রদর্শনস্বরূপ অনেকের নামের শুরুতে মুহাম্মদ যোগ করা হয়ে থাকে। মুহাম্মদ মূলত একটি স্বতন্ত্র নাম। মুহাম্মদ হলো কোন সন্দেহ ছাড়াই জগতের শ্রেষ্ঠ নাম।

তাই যুগে যুগে দেখা যায় দাদা, বাবা এবং ছেলের একই নাম থাকে ‘মুহাম্মদ’। তবে আমাদের জেনে রাখা দরকার নবীজি ছাড়া অন্য কারও নাম যদি মুহাম্মদ রাখা হয় এবং সেই নাম শুনলে দরুদ শরিফ পড়ার দরকার হয় নয়)।

আজকের আলোচনার বিষয়- স দিয়ে ছেলেদের ইসলামিক নাম অর্থসহ

কারও নামের সঙ্গে মুহাম্মদ থাকলে তা সংক্ষেপে লেখা ঠিক না। মু., মোহাং, মো., মোহা. এসব লেখা উচিত নয়, নাম সম্পুর্ন পূর্ণরূপেই লেখা ভাল।

ইংরেজি এবং অন্যান্য ভাষায়ও মুহাম্মদ নাম টি সমপূর্ণরূপে লেখা দরকার। মুহাম্মদ নাম সংক্ষেপে লিখা হলে ভিসা, এবং পাসপোর্টসহ নানান ধরনের অফিশিয়াল কাগজপত্রে জটিলতা দেখা দেওয়ার সম্ভাবনা থাকতে পারে।

আজকের আলোচনার বিষয়- স দিয়ে ছেলেদের ইসলামিক নাম অর্থসহ

Leave a Reply